.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শনিবার, ১২ আগস্ট, ২০১৭

পলিদাগ

(C)Image:ছবি














অভীক কুমার দে
.
মঝম বৃষ্টি হয়েছিল সেদিন,
ঝুপড়ি থেকে বেরিয়ে কোন কাঁচা মুখ ভিজেছিল,
কোন প্রিয় সুর যদিও বেজে ওঠেছিল গুনগুন
ধড়ফড় শোনেনি কোন হৃদয়পুরের প্রেমিক।
বিরামহীন বৃষ্টি হবার পর
বন্যাকবলে কষ্টের নতুন ছবি,
সব জলে পিপাসা মেটে না জেনেও
চেনাজানা পথ ডুবে ডুবেই খেয়েছে জল;
ঘোলা জলের শ্যাওলা গন্ধ আর ধারালো বালিকণা
কতটা হৃদয় কাটে পথের কি জানা নেই ?
.
সব ভেজারাগ ভুলে যেতে চায় যদি একদিন
পথের গায়ে জেগে উঠবে পলিদাগ।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন