.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

শুক্রবার, ১১ আগস্ট, ২০১৭

ফেরারি পাখি

                
     ।।     রফিক উদ্দিন লস্কর     ।।
(C)Image:ছবি
















লোমেলো সব আসেনি বেরিয়ে কিছুই
জং ধরেছে ডায়েরির পাতায়,
সেই কবে তুমি চলে গেছো না বলে কিছু
সবকিছু দগ্ধ হয় বিরহী ব্যথায়।
ভিড়ের মাঝে হারিয়ে গেছে সকলই ছন্দ
তাদেরও ফেরার নেই কোন তাড়া,
বদ্ধ ঘরের মাঝে ইচ্ছে গুলো হেলান দেয়
শব্দ গুলো মোটেই পায়নি ছাড়া। 

হাত ধরে কাঁপন কলমে শুকনো অভিমান 

মৃতপ্রায় নদী এক বুকের ভিতরে,
সবুজ প্রান্তরে মনে হয় যেন মরু মরীচিকা
সাদা কাগজে লালচে রঙ ধরে।
অমাবস্যায় ঢেকেছে চাঁদ আলো আকাশে
গুটিগুটি পায়ে চলে যাচ্ছে সময়!
আজি কবিতা লিখিতে মোর খুব ইচ্ছে হয়
তোমার অস্তিত্ব যেন কবিতায় রয়।
'ফেরারি পাখি ' হবে ঐ নতুন কবিতার নাম 

ঘেরা থাকবে বিষণ্ণতা ও আবেগ,
গরমিলে সব হারিয়ে যায়, শব্দ-অলংকার 

গোধূলি বেলায় শ্রাবণের মেঘে।
যেদিন অনেক দূরে মেঘকালো আঁধার করে
হারিয়ে গেছো কোন মায়া নগরে,
আমি পড়ে রয়েছি শুধু আপন অস্তিত্ব খুঁজে
বিষণ্ণ স্বপ্ন নিয়ে মোর ভাঙা ঘরে।
-----------------------------------
১১/০৮/২০১৭ইং
নিতাইনগর,হাইলাকান্দি (আসাম-ভারত)






একটি মন্তব্য পোস্ট করুন