.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

রবিবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৭

সেকেলে বেহায়া

##ঝোড়োমেঘ##

  (সিক্তা বিশ্বাস)

খেয়ালীপনায় ভরছি পাতা
বাস্তবজ্ঞানে শূন্য খাতা !
দুনিয়াদারিতে বেমালুম বেখবর !
খবর নিলেই কেবল বুক ধড়ফড় !
জানতাম দয়া ,মায়া ,মমতা 
সংসারের এ তিন ক্ষমতা l
এ নিয়ে ছিলাম নিত্যানন্দে
মানবিকতার আতরি সুগন্ধে ----
দুনিয়াদারির ছিলনা পরোয়া ,
মিশুকে ,হাসি-খুশি পরিচিতি ঘরোয়া l
অগ্রগতির নেশায় মেতে
সমাজ সংসার মাতলো পাল্টাতে !
আজ সেই অনুভূতিগুলি কেবলই সেকেলে !
ধার দিতে ব্যস্ত সবাই নিজেদের আক্কেলে !
হাল ফ্যাশনের নেশার মাতন ,
ছুটছে বন্ বন্  বাড়ছে আয়তন !
সাতমহলা প্রাসাদে আজ
হয়না প্রবীনের মমতার রাজ্ !
বুড়ো-বুড়িদের আজ কে দেয় মান ---
' বৃদ্ধাশ্রম ' যে তাঁদের একমাত্র স্থান !
সুরক্ষা সেথায়  ছিল অনুমান ,
বাস্তব বাটছে ভিন্ন জ্ঞান !
আজ ব্যবসাদারির পাল্লাভারী !
' হেমলকের ' সুবাদে সুযোগ নিচ্ছে বৃদ্ধাশ্রম কারবারি !
' হেমলক ' , ঈশ্বরের এক বিস্ময়কর দান !
রস সেবনে  নিশ্চিন্তে পরলোকে পারি ....
দর্শায় কারণ স্বাভাবিক !  মতলব  আনজান !
বস্তুত ,সেথায় আজ নেইকো নিরাপত্তার বালাই ,
ব্যস্ত সবাই প্রতিযোগিতায় কে কত বড় কসাই !
তুমি আমি ভায়া সেকেলে নির্বোধ বেহায়া !
তবুও আঁকড়ানো  মনে মমতা ,দয়া, মায়া !

        ------------------------------------------

**করাঘাত সংকলন **
   শিলং l




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন