.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ১ নভেম্বর, ২০১৭

কেউ দোষ নেবেন না

।। সুমন পাটারী।।

(C)Image:ছবি










মি এইমাত্র ঘরে এসেছি বিরক্ত, ক্লান্ত
বেকার যুবক, বগলে ঘামের ভোসকা গন্ধ,
সারাদিন এতো জো
রে দৌড়েছি এখন আর
কবিতা লিখার বা পড়ার কোনো মুড নেই।
কী লিখবো-- ক্ষুধার সামনে বুকের চিনচিনে ব্যথা
নেহাত নাটকীয় মনে হলো।
কিছুক্ষণ আগে এক বন্ধুর সাথে কথা হলো,
আমার মতোই ফসিল তালিকার,
সবেমাত্র বহিরাজ্য থেকে এলো
পারিবারিক দায়-চুম্বকের টানে।
উচ্চশিক্ষিত--,
অনেকদিন হলো কিছু কাজ খুঁজছে
প্রেমিকার নরম বুক ও পার্কের সবুজ বিকেল ভুলে--
একদিন সবার এমন তীব্র ক্ষুধা লাগে!
কারোকাছে কিছু চাওয়া বা কবিতার রূপে ব্যর্থ প্রতিবাদের কোনোও সাহস নেই
আমার কাছে, আমার গলার হাড় খুব নরম ও সাধারণ,
যেখানে ঝুলে আছে মা,পঙ্গু পিসি ও অসুস্থ বাপ।
আপনারা দোষ নেবেন না কেউ মহামান্য নানান দলের জনপ্রতিনিধি।
প্রতিবার ভোট দিই অথচ সত্যি বলছি, একটি বেকার যুবক---
এখানে খুটি দিয়ে দাঁড়াতে আজ-ও বড় কষ্ট।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন