.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৭

মনোভূমি

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি


















.
মার মাটি শরীর।
যখন থেকে যৌবন এসেছে
ধানগোছা শাড়ির সাথে সব্জি ছবির ব্লাউজ
ভীষণ ভালো লাগে,
ঠিক এমন সেজেগুজে ভিজে গেলে
বাতাসের তরতাজা স্পর্শ
আমার শিহরণ...
সিঁথিপথের নদী জানে
একলা কাটানো সময় আনমনা গুনগুন
কোন অজানা সুর নয়,
ফসলের অঙ্কুরেই মা হয়ে উঠি।
........................



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন