.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

চাষের জমি

।। অভীক কুমার দে ।।
(C)image:ছবি










লন থেকেই চাষের মাটিকে জানি
আকাশের নিচে লালন করি আজীবন।
ষড়যন্ত্রকারীর অভাব থাকে না ফসলের দিনে,
এঁড়ে- লাগা ফসলও জানে--
রকমারি বিনিয়োগের দ্রোপদী আজও মাটি।
জন্মদিনের রাতে উপহার পেলেই কেউ চাষি নয়,
মাটির দেশে বীজঘুম- চারাজীবন থেকে মা হয়ে ওঠা
ইনকিলাবের বাতাস দেখেছে ইজারায় ইঁদুরজালি।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন