.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

মতদানের দাতা

।। অভীক কুমার দে ।।

(C)Image:ছবি








কমুঠো ভাত চাইলেই বদলে যায় গোলার্ধ ?
দলের পর দল আসে, প্রমাণ দিয়ে যায়--
নাগরিক...
আমার দ্রাঘিমাংশ বলে--
এ নগর আজও আদিম, শুধু কাপড় পড়ে,
সবাই বেনিফিশিয়ারি, আর তুই ?
.
মধ্যরেখা বরাবর অভাবের টর্নেডো
জোড়াতালির সিঁড়ি বেয়ে ঘাড়ের কাছে,
টিক্ টিক্ ঘড়ি চলছে শিরার ভেতর
যন্ত্রণায় ভুলে যাই 'ঘোড়ায় চড়িলো...'
.
অক্ষরেখা হয়ে খবর আসে-- চাল নেই,
সিঁথি চুঁইয়ে নেমে আসে কারো মায়ের গালি।
একমুঠো ভাত চাইলেই বদলে যায় গোলার্ধ,
অথচ মতদানের দাতা আমি-ও !
'দেশ তবে চক্রের পক্ষপাত দোষেই দুষ্ট।




একটি মন্তব্য পোস্ট করুন