.“...ঝড়ের মুকুট পরে ত্রিশূণ্যে দাঁড়িয়ে আছে, দেখো স্বাধীন দেশের এক পরাধীন কবি,---তার পায়ের তলায় নেই মাটি হাতে কিছু প্রত্ন শষ্য, নাভিমূলে মহাবোধী অরণ্যের বীজ... তাকে একটু মাটি দাও, হে স্বদেশ, হে মানুষ, হে ন্যাস্ত –শাসন!— সামান্য মাটির ছোঁয়া পেলে তারও হাতে ধরা দিত অনন্ত সময়; হেমশষ্যের প্রাচীর ছুঁয়ে জ্বলে উঠত নভোনীল ফুলের মশাল!”~~ কবি ঊর্ধ্বেন্দু দাশ ~০~

বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

অভাবের লু

।। অভীক কুমার দে ।।
(C)Image:ছবি









মার বসন্ত নিয়ে গেছে অভাবের লু,
মটকা পড়া শরীর এখন মরুপথেই হাঁটে
বুকের ভেতর গোছানো আকাশ,
মেঘ এসে জমা হয়,
সবটা আকাশ ঢেকে দিলে
উষ্ণতা বাড়ে;
যতসব মিথ্যে প্রতিশ্রুতির কালো ছায়া।
ললিতসুরে ডেকে ওঠা ভোরের কোকিল
মুকুলবৃষ্টিতে ভিজে যাওয়া চাতকের চোখ
রঙিন পলাশের ছবি আঁকে না এখন,
উড়ে উড়ে দূরে যায় মেঘের বিনুনি
বিশ্বাসী মাটি খোঁজে,
পিছে পিছে বালিয়াড়ি;
ভেসে ওঠে হতাশার মরীচিকা।





একটি মন্তব্য পোস্ট করুন